Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

বাংলাদেশ টেলিভিশন কর্তৃক জনগণের উদ্দেশ্যে সেবাসমূহ (সিটিজেন চার্টার)

ভূমিকাঃ

 

 

১৯৬৪ সালের ২৫ ডিসেম্বর তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানে পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে এ দেশে সর্বপ্রথমটেলিভিশন সম্প্রচার কার্যক্রমের যাত্রা শুরু হয়। ১৯৬৭ সালে টেলিভিশন কর্পোরেশন ও স্বাধীনতাত্তোর ১৯৭২ সালে রাষ্ট্রপতির আদেশে বাংলাদেশ টেলিভিশন একটি রাষ্ট্রীয় ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম হিসেবে রূপান্তরিত হয়।

 

বাংলাদেশ টেলিভিশন একটি রাষ্ট্রীয় ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম হিসেবে তথ্য পরিবেশন, শিক্ষার প্রসার, উনয়ন কর্মকান্ডে সকলকে উদ্বুদ্ধকরণ ও নির্মল আনন্দদান এই চারটি মূলনীতিকে সামনে রেখে ঢাকা ও চট্রগ্রামে একটি করে কেন্দ্র ও দেশের বিভিন্ন স্থানে ১৪টি রিলে কেন্দ্রের মাধ্যমে দেশের ৯৮% জনগোষ্ঠীর উদ্দেশ্যে অনুষ্ঠান/সংবাদ পরিবেশন করে আসছে ।

 

বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুমোদিত পদকাঠামো অনুযায়ী পরিসেবামূলক কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য পরিচালক পর্যায়ের একটি সংক্ষিপ্ত  তথ্যচিত্র নিম্নে পেশ করা হলোঃ

 

বাংলাদেশ টেলিভিশন একটি সরকারী ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম হিসেবে সংবাদ/অনুষ্ঠান পরিবেশনা ছাড়াও জনগনের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন পরিসেবামূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে, যেমনঃ

 

01)              সরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠান সম্প্রচার;

02)             বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠান সম্প্রচার;

03)             অডিশনের মাধ্যমে শিল্পী ও গীতিকার নির্বাচন;

04)              জনসচেতনতামূলক সেবা;

05)             সংবাদ পরিবেশন;

06)             বিজ্ঞাপন বিপনন;

07)              বনিজ্যিক/আবাসিক/কেবল অপারেটর/ফিড অপারেটর লাইসেন্স প্রদান; ও

08)             অন্যান্য সেবাসমূহঃ

 

(K)            ধর্মীয় অনুষ্ঠান, খেলাধূলা, হারানো বিজ্ঞপ্তি ও         নিরাপত্তা সংক্রান্ত তথ্য পরিবেশন ।

 

বাংলাদেশ টেলিভিশন কর্তৃক জনগনের জন্য উপরোক্ত সেবা প্রদানের পদ্ধতি সেবা প্রাপ্তি সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা নিম্নে প্রদত্ত হলোঃ

 

01.             সরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠান প্রচার সম্পর্কিত সেবাঃ

 

গণসংযোগের জন্য সরকারী ইলেকট্রনিক মাধ্যম হিসেবে বাংলাদেশ টেলিভিশনের দায়িত্ব অপরিসীম । বিটিভি সরকার ও জনগণের মধ্যে সেতুবন্ধন হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ কর্ম সম্পাদন করে থাকে । সরকারের দৈনন্দিন কর্মকান্ড, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সকল অনুষ্ঠান ধারণ ও প্রচারের জন্য সরকারের দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ভিডিও, ফুটেজ, ধারণকৃত অনুষ্ঠান সরবরাহ করা হলে প্রচারের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় । এছাড়া বিটিভি সরকারের নির্দেশিত বিভিন্ন অনুষ্ঠান ধারণ ও নির্মাণ করে প্রচার করা হয় । জনস্বার্থমূলক অনুষ্ঠান ও সংবাদ পরিবেশনার জন্য উপ-মহাপরিচালক (বার্তা/অনুষ্ঠান) এর সাথে যোগাযোগ করা যেতে পারে । 

 

 

 

 

যোগাযোগের ঠিকানাঃ

 

উপ-মহাপরিচালক (বার্তা/ অনুষ্ঠান)

বাংলাদেশ টেলিভিশন

রামপুরা, ঢাকা

টেলিফোন নম্বরঃ ৮৩৫০০০৮ (বার্তা), ৮৩১৬২১২ (অনুষ্ঠান)

Fax No : 88-02-8312927

E-mail : btv-news@bttb.net.bd

 

    

 

02.            বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত (প্যাকেজ) অনুষ্ঠান প্রচার সম্পর্কিত সেবা

 

বাংলাদেশ টেলিভিশন সরকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিজস্ব অনুষ্ঠান প্রযোজনা ছাড়াও বেসরকারী/বহিরাগত সৃজনশীল ব্যক্তি অথবা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক নির্মিত নান্দনিক সুস্থ অনুষ্ঠান সরকার কর্তৃক অনুমোদিত মূল্য হার পরিশোধসহ নিম্নরূপ শর্ত সাপেক্ষে প্রচারের সুযোগ রয়েছেঃ

            কমিটিঃ

১)         বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত সকল অনুষ্ঠান কমিটি কর্তৃক অবলোকন করে প্রচারযোগ্যতা নির্ধারণ করা হয়;

২)         অনুষ্ঠান সংযোজন, পরিবর্তন, পরিবর্ধন ও পরিমার্জনের বিষয়ে কমিটি কর্তৃক পরামর্শ দেয়া হয়;

৩)         কমিটি অবলোকন করে টিভিতে প্রচার অনুপযোগী অনুষ্ঠান বাতিল করতে পারেন;

৪)         কমিটি বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠান ক্রয়ের শ্রেণী নির্ধারণ করেন;

 

নির্মাতাঃ

 

১)         সৃজনশীল কর্মে উদ্যোগী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান বেসরকারী উদ্যোগে অনুষ্ঠান নির্মাণ করতে পারবেন।

২)         অনুষ্ঠান নির্মাতা একক প্রতিটি অনুষ্ঠান জমা দেয়ার সময় ফী বাবদ টাঃ ৫০০০/= (পাঁচ হাজার), ধারাবাহিক অনুষ্ঠান/নাটক ১৩ পর্ব পর্যন্ত টাঃ ১৫,০০০/= (পনের হাজার) এবং পরবর্তী প্রতি পর্বের জন্য টাঃ ১,০০০/= (এক হাজার) টাকার পে- অর্ডার/ব্যাংক ড্রাফট (অফেরৎযোগ্য) জাসক (টিভি উহং) এর অনুকূলে জমা দেবেন।

৩)         টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ বিটিভিতে প্রচারিত বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে একটি নির্দিষ্ট ছকে (পরিশিষ্ট- ক) বেসরকারী নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধীকরণের আবেদনপত্র আহবান করবে। নিবন্ধীকৃত প্রতিষ্ঠানই কেবল অনুষ্ঠান নির্মাণ করতে পারবে।

তবে, বিশেষ ক্ষেত্রে একক ব্যক্তি উদ্যোগেও অনুষ্ঠান নির্মাণের সুযোগ থাকবে।

            আগ্রহী নতুন প্রতিষ্ঠান বছরের যে কোন সময় তালিকাভুক্তির আবেদন করতে পারবেন।

            এই তালিকা প্রতি ইংরেজী বছরের প্রথম মাসে হাল নাগাদ করা হবে।

৪)         কেবলমাত্র বিটিভির তালিকাভুক্ত শিল্পীগণ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন (ন্যুনতম ৮০%)। বিশেষ প্রয়োজনে তালিকাভুক্ত নন এমন কোন শিল্পীর অংশগ্রহণ অপরিহার্য্য হলে যোগ্যতা সাপেক্ষে ২০% শিল্পী অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে।

        

         অনুষ্ঠান ক্রয় স্পন্সরঃ

 

 

 

 

 

১)         বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠান যথাযথভাবে অনুমোদনের পর বাংলাদেশ টেলিভিশন অনুষ্ঠান নির্মাতার নিকট থেকে বাজেট বরাদ্দ সাপেক্ষে অনুষ্ঠান ক্রয় করতে পারবে। কোন অনুষ্ঠান নির্মাতা/নির্মাণ প্রতিষ্ঠান যদি স্পন্সরসহ অনুষ্ঠান জমা দিতে আগ্রহী হন, সে ক্ষেত্রে স্পন্সরের সম্মতিপত্র অনুষ্ঠানের সাথে জমা দিতে হবে। বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠান ক্রয়কালে, বিশেষতঃ সুস্থ বিনোদন, জনকল্যাণ, দারিদ্র ও বিমোচন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নতকরণ, মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক অনুষ্ঠান অগ্রাধিকার পাবে।

 

২)         অনুষ্ঠান ক্রয়ের ক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক অনুমোদিত মূল্য হার অনুসৃত হবে।

 

.        অনুষ্ঠানের সীমারেখাঃ

 

১)         বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠান প্রচারের তারিখ ও সময় টিভি কর্তৃপক্ষ নির্ধারণ করবে। অনুষ্ঠান বিটিভিতে জমা দেয়ার তারিখের ভিত্তিতে গ্রহণযোগ্যতা অনুযায়ী ‘আগে জমাকৃত অনুষ্ঠান আগে দেখানো হবে’ এই নীতি অনুসৃত হবে। জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ দিবস এবং উৎসবাদি অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে এই নীতি শিথিলযোগ্য।

 

২)         ধারাবাহিক নাটক, সিরিজ অনুষ্ঠান ন্যূনতম ৪ পর্ব এবং সর্বোচ্চ ১৩ পর্বের মধ্যে শেষ করতে হবে। তবে অনুষ্ঠানের স্বার্থে কমিটি শর্ত শিথিল করতে পারবে। জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ দিবস ও উৎসবাদির অনুষ্ঠান নির্মাণের জন্য টিভি কর্তৃপক্ষের পূর্ব অনুমোদন নিতে হবে। এক্ষেত্রে প্রচার তারিখের কমপক্ষে ৪৫ দিন পূর্বে আবেদন করতে হবে।

 

         অনুষ্ঠানের বিষয়বস্তুঃ

 

১)         স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, মূল্যবোধ ও আদর্শ সমুন্নত রাখতে হবে।

২)         রাষ্ট্র পরিচালনার মূলনীতি এবং বাংলাদেশ সরকারের রাষ্ট্রীয় আদর্শ ও নীতিমালার ওপর ভিত্তি করে অনুষ্ঠান নির্মাণ করতে হবে।

৩)         বাংলাদেশের মানুষের ইতিহাস ও ঐতিহ্য, শিক্ষা ও সংস্কৃতি, সামাজিক ও ধর্মীয় মূল্যবোধ, মন ও মানসিকতাকে শ্রদ্ধা প্রদর্শনপূর্বক অনুষ্ঠানের বিষয়বসুত রচিত হবে। স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, জাতীয় সংহতি, উন্নয়ন ও রাষ্ট্রীয় ভাবমূর্তির পরিপন্থী কোন অনুষ্ঠান তৈরী করা যাবে না।

৪)         হিংসাত্নক, সন্ত্রাসমূলক এবং বাঙালি সংস্কৃতি ও মূল্যবোধের পরিপন্থী কোন অনুষ্ঠান প্রচার করা যাবে না।

৫)         সকল ধর্মীয় অনুভূতির প্রতি পূর্ণ শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা হবে। সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতা পরিহার করতে হবে।

 

৬)         অনুষ্ঠানে উচ্চারণ, কন্ঠ, বাচনভঙ্গি, অভিনয়, উপস্থাপনা পদ্ধতির পেশাগত মান কোনক্রমে ক্ষুন্ন করা যাবে না।

৭)         বিদেশী ভাষায় নির্মিত কালজয়ী অনুষ্ঠান, বিশেষ করে শিশুতোষ অনুষ্ঠান বাংলাদেশে বাংলা ভাষায় ডাব করে প্রচার করা যাবে।

 

৮)         বাংলা ভাষাকে যোগ্য মর্যাদায় সুপ্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে সঠিক বাংলা উচ্চারণের একটি আদর্শমান স্থাপনের চেষ্টা করতে হবে।

৯)         নাটক, লোক সংস্কৃতিমূলক ও অন্যান্য অনুষ্ঠানের প্রয়োজনে আঞ্চলিক ভাষা ব্যবহার করা যাবে। তবে কোনক্রমেই কোন অঞ্চলের প্রতি কটাক্ষ করার জন্য আঞ্চলিক ভাষা ব্যবহার করা যাবে না।

১০)        ছোটদের অনুষ্ঠানে পরনিন্দা, বিবাদ, কলহের দৃশ্য পরিহার করতে হবে ও চরিত্র গঠনের সুশিক্ষা প্রদানের দিকে বিশেষ লক্ষ্য রাখতে হবে।

১১)        নৈতিক বোধের উন্নয়ন, সামাজিক কুসংস্কার থেকে মুক্তি এবং সমাজ- বিরোধী কার্যকলাপ রোধ করার সুস্পষ্ট দিক নির্দেশনা রাখতে হবে।

১২)        অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রকৃত ইতিহাস উপস্থাপন ও মুক্তিযোদ্ধাদের ভূমিকা গৌরবান্বিত করতে হবে।

১৩)       অনুষ্ঠান বিবেচনায় প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ফিল্ম সেন্সর এ্যাক্ট-এর বিধানসমূহ কার্যকর থাকবে।

১৪)           অনুষ্ঠানে কোন প্রকার অশোভন উক্তি উচ্চারণ করা যাবে না।

         প্রশিক্ষণঃ

 

১)         বেসরকারী অনুষ্ঠান নির্মাণে জড়িত শিল্পী ও কলাকুশলীদের জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউটে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

         কারিগরী তথ্যঃ

 

১)         অনুষ্ঠান অবশ্যই যথাযথ কারিগরী ও পেশাগত মান সম্পন্ন হতে হবে।

 

২)         টেলিভিশনে প্রদর্শনের উপযোগী ক্যাসেট গ্রহণযোগ্য হবে।

 

৩)         কারিগরী বিষয়সমূহ ছাড়াও দৃশ্য, শব্দ, রংসহ যে কোন কারিগরী ত্রুটি অনুষ্ঠানটির প্রচারযোগ্যতার ক্ষেত্রে অনুপযুক্ত বিবেচিত হবে।

 

         অনুষ্ঠানের স্বত্বঃ

 

 

১)         নির্মাতাগণ যে সকল অনুষ্ঠান বাংলাদেশ টেলিভিশনের নিকট প্রচারের জন্য সরবরাহ করবেন সেগুলো বিটিভিতে প্রচারের পূর্বে অন্য কোন মাধ্যমে বিক্রয় বা প্রদর্শন করতে পারবেন না।

 

২)         কোন অনুষ্ঠান বিটিভিতে প্রচারের পরে অনুমতি সাপেক্ষে অন্য কোন মাধ্যমে প্রদর্শন করা যাবে।

 

৩)         টেলিভিশন কর্তৃক ক্রয়কৃত অনুষ্ঠানের সর্বস্বত্ব টিভি কর্তৃপক্ষের থাকবে।

 

৪)         স্পন্সরড্ অনুষ্ঠানের স্বত্ব সংশ্লিষ্ট নির্মাতার থাকবে।

 

৫)         স্পন্সরড্ অনুষ্ঠান পূনঃপ্রচারের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট বিজ্ঞাপন হারে (রেয়াত ছাড়া) পূনঃস্পন্সর করতে হবে।

 

         যৌথ প্রযোজনা এবং বিদেশে স্যুটিংঃ

 

১)         কোন নির্মাতা যদি বিদেশী কোন সংস্থার সাথে যৌথ প্রযোজনায় অনুষ্ঠান নির্মাণ অথবা বিদেশে স্যুটিং করার জন্য আগ্রহী হন, তবে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে পূর্বাহ্নে লিখিত অনুমতি নিতে হবে।

২)         বিদেশী কালজয়ী সাহিত্য মূল্য সম্পন্ন ও কলাসিক্স রচনা চিত্রায়ণের ক্ষেত্রে পূর্বাহ্নে তথ্য মন্ত্রণালয়ের লিখিত অনুমতি নিতে হবে।

 

*          উল্লিখিত নীতিমালায় অন্তর্ভূক্ত নেই এমন কোন বিষয় উত্থাপিত হলে সেক্ষেত্রে যথাযথ কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় নির্দেশ এবং অনুমোদন প্রদান করতে পারেন।

 

      

 

বেসরকারী অনুষ্ঠান জমাদান সংক্রান্ত তথ্যঃ

বেসরকারী উদ্যোগে নির্মিত অনুষ্ঠানের ক্যাসেট মাস্টার প্রিন্ট হতে হবে । প্রধান কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক (প্রশাসন)-এর দপ্তরে প্যাকেজ অনুষ্ঠান জমাদান করতে হবে । জমাকৃত ক্যাসেট প্রিভিউ কমিটি কর্তৃক অবলোকনের পর প্রচারের উপযোগী অনুষ্ঠান প্রচার করা হয় । অন্যদিকে অনুপযোগী অনুষ্ঠানের ক্যাসেট মন্তব্যসহকারে ফেরৎ প্রদান করা হয়ে থাকে । এ ক্ষেত্রে প্রচারের অনুপযোগী প্রতিষ্ঠান/ব্যক্তি পুনঃ সংশোধন অথবা যথাযথ যুক্তিসহকারে সচিব, তথ্য মন্ত্রণালয় বরাবরে আপীল করতে পারেন । আপীলের জন্য ফি প্রদান করতে হয়না । পরবর্তীতে আপীল কমিটির সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত  হিসেবে বিবেচিত হয় । প্যাকেজ অনুষ্ঠান সংক্রান্ত যোগাযোগের ঠিকানাঃ

 

উপ-মহাপরিচালক (অনুষ্ঠান)

বাংলাদেশ টেলিভিশন

রামপুরা, ঢাকা

টেলিফোন নম্বরঃ ৮৩১৬২১২

Fax No : 88-02-8312927

E-mail : btv-news@bttb.net.bd

 

বেসরকারী নির্মাতা/নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধীকরণের আবেদনপত্র পরিশিষ্ট-হিসেবে সংযুক্ত ।

 

 

০৩।       অডিশনের মাধ্যমে শিল্পী গীতিকার নির্বাচনঃ

 

          বাংলাদেশ টেলিভিশনে শিল্পী ও গীতিকার হিসেবে তালিকাভূক্তির জন্য উপ-মহাপরিচালক (অনুষ্ঠান)/জেনারেল ম্যানেজার-এর বরাবের আবেদন উপস্থাপন করতে হয় । গীতিকার হিসেবে তালিকায় অন্তর্ভূক্তির জন্য কমপক্ষে ২০টি গানের পান্ডুলিপি আবেদনপত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হবে । প্রাপ্ত আবেদনের ভিত্তিতে প্রতি ০৬ মাস এবং ক্ষেত্র বিশেষ ০১ বছরের মধ্যে অডিশনের মাধ্যমে শিল্পী ও গীতিকার নির্বাচনের ব্যবস্থা নেয়া হয় । যোগাযোগের ঠিকানাঃ

 

উপ-মহাপরিচালক (অনুষ্ঠান)

বাংলাদেশ টেলিভিশন

রামপুরা, ঢাকা

টেলিফোন নম্বরঃ ৮৩১৬২১২

Fax No : 88-02-8312927

E-mail : btv-news@bttb.net.bd

 

০৪।       জনসচেতনতামূলক সেবাঃ

 

বাংলাদেশ টেলিভিশন রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম হিসেবে বিভিন্ন জনসচেতনামূলক অনুষ্ঠান প্রচার করে থাকে, যেমনঃ

 

K)               সরকারের বিভিন্ন আদেশ-নির্দেশ;

L)                আবহাওয়া বিজ্ঞপ্তি প্রচার;

M)             দুর্যোগ প্রস্তুতি ও মোকাবেলার জন্য বিজ্ঞপ্তি এবং সার্বক্ষণিক বিশেষ বুলেটিন প্রচার;

N)              আইএসপিআর থেকে প্রদত্ত গোলা বর্ষন সংক্রান্ত সতর্কতা, সসস্ত্র বাহিনীর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি;

O)               সরকারী কর্মকমিশনের বিজ্ঞপ্তি;

P)                নারী ও শিশু উন্নয়নে যোগাযোগ কার্যক্রম;

Q)               আর্থ সামাজিক উনয়নে অনুষ্ঠান (এইডস, মাদক বিরোধী, জাটকা নিধন বিরোধী, যৌতুক বিরোধী, জন্ম নিয়ন্ত্রণ, জন্ম নিবন্ধন, এসিড নিক্ষেপ বিরোধী, জনসাধারণের আচরণ ও দৃষ্টিভঙ্গীর উন্নয়ন);

R)               ট্রাফিক আইন সতর্কতা, ভেজাল বিরোধী ও ওজন পরিমাপে কারচুপি রোধে প্রচারণামূলক অনুষ্ঠান;

S)                সুশাসন নিশ্চিতকল্পে আইন মেনে চলতে উদ্বুদ্ধকরণ;

T)                কৃষি বিষয়ক অনুষ্ঠান প্রচার;

U)               শ্রোতাদের নিকট থেকে প্রাপ্ত প্রাসঙ্গিক চিঠিপত্রের জবাব প্রদান;

 

উপরোক্ত বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তর/পরিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্যাদি সরবরাহের ভিত্তিতে উপ-মহাপরিচালক (অনুষ্ঠান)-এর দপ্তর থেকে গুরুত্ব বিবেচনায় তাৎক্ষণিক, প্রতিদিন, এক দিনের মধ্যে ও  ধারাবাহিকভাবে সম্প্রচারের ব্যবস্থা নেয়া হয়ে থাকে । তজ্জন্য কোন অর্থ পরিশোধের প্রয়োজন নেই ।

 

 

০৫।     সংবাদ সংক্রান্তঃ

বাংলাদেশ টেলিভিশন একটি সরকারী ইলেট্রনিক গণমাধ্যম । বর্তমান পরিবর্তিত প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ টেলিভিশন সংবাদের সর্বস্তরে গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সংবাদের আঙ্গিক ও পরিবেশনায় ব্যাপক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে । সারা দেশের সংবাদ সংগ্রহের জন্য একটি শক্তিশালী নোটওয়ার্ক তৈরিসহ বিদেশী সংবাদ সংগ্রহের জন্য বার্তা কক্ষে ০২টি ফ্যাক্স মেশিন সংস্থাপন করা হয়েছে । বাংলাদেশসহ পৃথিবীর যে কোন দেশ থেকে সরাসরি ফ্যাক্স মারফত দ্রুত সংবাদ প্রেরণ করতে পারে এবং উক্ত সংবাদ সাথে সাথে প্রচার করা হয়ে থাকে । বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) ও ইউএনবি-এর মাধ্যমে সরকারী ও বেসরকারী সংবাদ বার্তা কক্ষে প্রেরণের সুযোগ রয়েছে । এছাড়া বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায় বিটিভি’র নিজস্ব সংবাদদাতা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের সংবাদ প্রেরণ করে থাকে এবং সাধারণ জনগণ ও যে কোন সংস্থা কর্তৃক বার্তা কক্ষে সংবাদ প্রেরণের সুবিধা গ্রহণ করতে পারে । বার্তা কক্ষে সংবাদ প্রেরণের জন্য যোগাযোগের ঠিকানাঃ

 

উপ-মহাপরিচালক (বার্তা)

বাংলাদেশ টেলিভিশন

রামপুরা, ঢাকা

টেলিফোন নম্বরঃ ৮৩৫০০০৮

Fax No : 88-02-8312927

E-mail : btv-news@bttb.net.bd

 

০৬।       বিজ্ঞাপন  সংক্রান্তঃ

 

বাংলাদেশ টেলিভিশন একটি ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম । পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত তথ্যাদি ও বিজ্ঞাপন চিত্র মানুষ-কে যেভাবে প্রভাবিত করে একটি ইলেকট্রনিক মাধ্যমে প্রচারিত তথ্যচিত্র মানুষকে তাঁর চেয়ে বেশী আকৃষ্ট করে । বিটিভি’র সংবাদ, অনুষ্ঠান ইত্যাদির পাশাপাশি প্রচারিত বিজ্ঞাপনে দেশীয় পন্য উৎপাদন, বিপনন ও ক্রয়ে জনসাধারণ-কে উদ্বুদ্ধকরণে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে । দেশের প্রচলিত আইন, রীতি-নীতি, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ পন্যের বিজ্ঞাপন বিটিভি প্রচার করে থাকে । বিজ্ঞাপনের ভাষা, উপস্থাপনা শ্রুতিমধুর, শোভনীয়, পরিমার্জিত ও নান্দনিক হওয়া বাঞ্ছনীয় ।

 

বাংলাদেশ টেলিভিশন কর্তৃক বিজ্ঞাপন বিপননের পরিসেবা গ্রহণের বিষয়ে তথ্যাদি নিম্নে প্রদত্তঃ

 

১)   বাংলাদেশ টেলিভিশনে পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য ০২টি ভাগে ভাগ করা যায়, যথা (১) বিজ্ঞাপন দাতা সরাসরি; (২) বিটিভি’র তালিকাভূক্ত এজেন্সীর মাধ্যমে;

 

v        বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য বিটিভি’র দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজ্ঞাপন নির্বাহীর সাথে যোগাযোগ করতে হবে ।

 

২)   বিজ্ঞাপন প্রচারে ইচ্ছুক কোন ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠান প্রচারিতব্য বিজ্ঞাপনের একটি পান্ডুলিপি বিটিভি’র দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজ্ঞাপন নির্বাহীর নিকট জমা দিবেন । সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা পান্ডুলিপির প্রাপ্তি স্বীকারপত্র প্রদান করবেন ।

৩)   বিটিভি কর্তৃক গঠিত বিজ্ঞাপন কমিটি প্রাপ্ত পান্ডুলিপি অবলোকন ও যাচাই-বাছাইপূর্বক প্রচারের অনুমোদনের জন্য সুপারিশ প্রদান করা হয় । প্রচারের অনুপযোগী হলে উপস্থাপিত পান্ডুলিপি সংশোধন, পরিমার্জন ও পরিবর্তনের পরামর্শ দেয়া হয় । বিটিভি’র বিদ্যমান বিজ্ঞাপন প্রচার নীতিমালা পরিপন্থী কোন বিজ্ঞাপন প্রচার করা     হয় না । বিজ্ঞাপন প্রচার কমিটি প্রাপ্ত পান্ডুলিপি প্রতিদিন অবলোকন করে সুপারিশ প্রদান করে থাকে।

৪)   অনুমোদিত পান্ডলিপির ভিত্তিতে বিজ্ঞাপন দাতা নিজস্ব খরচে বিজ্ঞাপনের ক্যাসেট প্রস্তুত করবেন । প্রস্তুতকৃত ক্যাসেট বিজ্ঞাপন নির্বাহীর নিকট জমা প্রদান করতে হবে । বিজ্ঞাপন সেন্সর কমিটি প্রাপ্ত বিজ্ঞাপন চিত্র অবলোকন করে প্রচারের জন্য অনুমোদন প্রদান করে    থাকে ।

৫)   বাংলাদেশ টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন প্রচারের উদ্দেশ্যে বিজ্ঞাপন দাতা ও বিটিভি’র বিজ্ঞাপন কর্তৃপক্ষের মধ্যে চুক্তি সম্পাদিত হয় ।

৬)   বিজ্ঞাপন সেন্সর কমিটি কর্তৃক চূড়ান্ত অনুমোদিত বিজ্ঞাপন প্রচারের উদ্দেশ্যে বুকিং ও সরকার কর্তৃক নির্ধারিত প্রয়োজনীয় বিজ্ঞাপন ফিসহ বাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুকূলে পে-অর্ডার/ডিডি আকারে অগ্রিম অর্থ জমা দিতে হবে ।

৭)   বুকিং প্রস্তাব ও পে-অর্ডার/ডিডি বিজ্ঞাপন প্রচারের কমপক্ষে ৬ (ছয়) দিন পূর্বে জমা দিতে  হবে ।

৮)   বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী কোন বিজ্ঞাপন প্রচার না হলে সংশিলষ্ট বিজ্ঞাপন নির্বাহীর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন । অনিবার্য কারণ বশতঃ নির্ধারিত তারিখে কোন বিজ্ঞাপন প্রচার না হলে পরিবর্তিত তারিখে নির্ধারিত বিজ্ঞাপন প্রচারের ব্যবস্থা নেয়া হয় ।

৯)   বিজ্ঞাপন প্রচার বিষয়ে বিজ্ঞাপন দাতা ‘সম্প্রচার সনদ’ প্রদানের জন্য পরিচালক (সেলস)-এর বরাবরে আবেদন করতে পারেন ।

10)  বিজ্ঞাপন প্রচারের যে কোন বিষয়ে পরিচালক (বিজ্ঞাপন)-এর সাথে যোগাযোগ করা  যাবে । যোগাযোগের ঠিকানাঃ

পরিচালক (বিজ্ঞাপন)

বাংলাদেশ টেলিভিশন

রামপুরা, ঢাকা ।

টেলিফোন নম্বরঃ  ৮৩২২৫৫০

Fax No : 88-02-8312927

E-mail : btv-news@bttb.net.bd

 

৮।       অন্যান্য সেবা

            ক)        ধমীূর্য় অনুষ্ঠান;

            খ)         খেলাধূলা;

            গ)         হারানো বিজ্ঞপ্তি;

            ঘ)         নিরাপত্তা সম্পর্কিত তথ্য পরিবেশন ।

 

০১)        ধর্মীয় ও খেলাধূলা অনুষ্ঠান সম্পর্কিত তথ্যাদি প্রচারের জন্য সংক্ষিপ্ত বিবরণ এবং হারানো বিজ্ঞপ্তির জন্য থানার জি,ডি ও ০১ (এক) কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি সরবরাহসহ উপ-মহাপরিচালক (অনুষ্ঠান)/জেনারেল ম্যানেজার বরাবরে আবেদন পেশ করতে হবে ।  উল্লিখিত বিষয়গুলো প্রচারের জন্য কোন অর্থ পরিশোধ করতে হবে না

 

02)   বাংলাদেশ টেলিভিশন একটি সরকারের গুরুত্বপূর্ণ কেপিআই অন্তর্ভূক্ত প্রতিষ্ঠান । সর্বোচ্চ নিরাপত্তা   বিধানকল্পে ভবণের অভ্যন্তরে জনসাধারণ/শিল্পীদের প্রবেশের জন্য পূর্বানুমতি নেয়া আবশ্যক । প্রবেশ অনুমতি গ্রহণের জন্য অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে কন্ট্রোলার/প্রোগ্রাম ম্যানেজার, কন্ট্রোল রুম ও টিএক্স রুম পরিদর্শনের জন্য পরিচালক পর্যায়ের কর্মকর্তা কর্তৃক স্বাক্ষরিত প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে হবে । ভবনে প্রবেশের ক্ষেত্রে মূল গেটে কর্মরত নিরাপত্তা অফিসার এবং অভ্যর্থকের সহযোগিতা গ্রহণ করা যেতে    পারে । বিস্তারিত তথ্যের জন্য যোগাযোগের ঠিকানাঃ

 

নিরাপত্তা অফিসার

     এবং

অভ্যর্থক

বাংলাদেশ টেলিভিশন

টেলিভিশন ভবন

রামপুরা, ঢাকা

টেলিফোন নম্বরঃ (পিএবিএক্স) ৯৩৩০১৩১-৯ পর্যন্ত ।